ভ্রমনে খেজুর রস খেতে চান? লালদিয়ার চর সংলগ্ন হরিনঘাটা বাজারে যান

আশেপাশে
0
0

[Poor News,নিজস্ব প্রতিবেদক]

সুন্দরবন আর অন্যদিকে বঙ্গোপসাগরের উত্তাল ঢেউ। সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখারও সূযোগ রয়েছে। প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশ, আবহমান বাংলার অপরূপ সৌন্দর্য। বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণ উপকূলে বরগুনার পাথরঘাটায় অবস্থিত এলাকাটির নাম লালদিয়ার চর। ভ্রমণ বিলাসীদের কাছে সৌন্দর্যের এই লীলাভূমিটি।বাংলাদেশের অন্যতম প্রকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভরা সুন্দরবন।পাশেই বঙ্গোপসাগর উপকূলীয় লালদিয়ার চর। এ চরটি সুন্দরবনের খুব কাছে থাকায় পর্যটকরা সহজেই সুন্দরবনের সৌন্দর্যকে উপভোগ করতে পারবেন। এখানকার বনে বাঘ, হরিণ, বানরসহ বিভিন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণী সহজেই পর্যটকদের মনে দোলা দেয়। লাখ লাখ লাল কাঁকড়া চরের সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে দিয়েছে অনেক গুণে। চরের বালুতে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকলেই গর্ত থেকে বেড়িয়ে আসতে শুরু করে লাল কাঁকড়ার ঝাঁক। মানুষের উপস্থিতি টের পেলেই মুহূর্তে আবার গর্তে ঢুকে যায়। এভাবে রাতদিন লুকোচুরি খেলতেও ওদের ধৈর্যচ্যুতি ঘটে না। কুয়াকাটায় ঘুরতে আসা পর্যটকরা ট্রলারযোগে এখানে আসেন।

শীত এলে গ্রাম কিংবা শহর সবার মনে পড়ে যায় বরগুনা জেলাধীন পাথরঘাটার ঐতিবাহী খেজুর রসগুড়ের কথা। গ্রামের মানুষ হাতের নাগালে পেলেও শহরের মানুষের কাছে অনেকটা দুষ্প্রাপ্য হয়ে দাঁড়ায়। শহরের মানুষের চাহিদা মেটাতে লালদিয়ার চর সংলগ্ন হরিনঘাটা বাজারে খেজুরের সন্ধ্যারস ও গুড়ের দুধ চায়ের আড্ডা জমে। পাথরঘাটা থানাধীন হরিনঘাটার বাজারে প্রতিদিন বিকাল বেলায় চায়ের দোকানে খেজুর গুড়ের দুধ চা ও সন্ধ্যায় খেজুরের খাঁটি রস পাওয়া যায়। ভেজালের ভিড়ে দেশের মানুষ ঐতিহ্যবাহী খেজুরের খাঁটি রস-গুড়ের স্বাদ প্রায় ভুলতে বসেছে। এ জন্য খেজুরের রস ও গুড়ের পরিপূর্ণ স্বাদ পাথরঘাটার হরিনঘাটা বাজারে পাওয়া যায়। প্রতিদিন বিকাল বেলা থেকে চায়ের দোকানে খেজুর গুড়ের দুধ চা ও সন্ধ্যায় খেজুরের খাঁটি রস পাওয়া যাচ্ছে। প্রতি গ্লাস রস ২০ টাকা ও দুধ চা প্রতি কাপ ১০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। রসের সঙ্গে হাতে ভাজা মুড়ি দেয়া হচ্ছে বিনামূল্যে। প্রতি বৎসর গোটা শীত মৌসুমজুড়ে এ আড্ডা চলে। সকালের রসও এখানে পাওয়া যায়।

 

 

Please follow and like us:
0
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *