পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় যুবকের হাত কেটে দিল লম্পট: কক্সবাজার

আশেপাশে
0
0

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় যুবকের হাত কেটে দিল লম্পট: কক্সবাজার  

                   পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় যুবকের হাত কেটে দিল লম্পট: কক্সবাজার

কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় এক যুবকের হাত কেটে দিয়েছে একই এলাকার লম্পট কামাল হোসেন (২৫) আহত যুবককে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। রোববার ২৮শে জুলাই ভোরে ঈদগাঁও ইউনিয়নের নম্বর ওয়ার্ড পূর্ব ভোমরিয়া ঘোনা এলাকায় ঘটনা ঘটেছে। আহত দিদারুল ইসলাম (২৮) পূর্ব ভোমরিয়া ঘোনা এলাকার হাজী জাফর আলমের পুত্র। লম্পট একই এলাকার আমির সুলতানের পুত্র কামাল হোসেন। এএসআই মহিউদ্দীন ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় কামালকে আটক করে।আহত যুবকের পরিবার স্থানীয়রা জানান, আটক কামাল হোসেন জনৈক নারীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। প্রায় সময় নারীর ঘরে রাতের বেলায় কামালকে দেখতো প্রতিবেশীরা। ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার তাকে ধরেছিল প্রতিবেশী দিদারুল ইসলামসহ এলাকার লোকজন। বিষয় নিয়ে স্থানীয়ভাবে ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বৈঠকেও বসে। সেখানে সমাজ সর্দারসহ স্থানীয় মেম্বার উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে কামাল রাতের বেলা নারীর বাড়িতে আর যাবে না মর্মে অঙ্গীকারনামা দেন। এরপরও রোববার বাড়িতে যায় কামাল। এদিকে আহত দিদারুল ইসলাম ও ঐ নারীর বাড়ী পাশাপাশি বাড়ি হওয়ায় রাতের বেলা আসা লম্পট কামালকে চোর মনে করে তাকে তাড়াতে এগিয়ে যাবার সময় ধারালো দা দিয়ে দিদারুলের মাথায় কোপ দেয় কামাল। হাত দিয়ে তা প্রতিহতের চেষ্টা করায় বাম হাতটি কেটে যায় বলে জানান স্থানীয়রা। সময় তার চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এলে ঘাতক কামাল হোসেন পালিয়ে যায়। দিদারকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানেও অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়। এদিকে ঘটনা জানাজানি হওয়ার ১১ ঘণ্টা পর তার নিজ বাড়ির পেছনে এক নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে আত্মগোপন করে কামাল। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে ফোন করে  বিষয়টি অবহিত করেন। পরে ওসি আসাদুজ্জামানের নির্দেশে এএসআই মহিউদ্দীন ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে কামালকে আটক করেন।স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার আবদুল হাকিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আহত দিদারকে নিয়ে হাসপাতালে আছি। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন চিকিৎসক। ঈদগাঁও পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (ওসি-তদন্ত) মোঃ আসাদুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে ঘাতককে আটক করা হয়েছে। একমাত্র আসামী হিসেবে তাকে শনাক্ত করেছে এলাকার লোকজন। আহত যুবক চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পরিবারকে মামলা করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

 

Please follow and like us:
0
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *