দিনমজুর বাবার একমাত্র ক্যান্সার আক্রান্ত মেয়ে বাঁচতে চাই : শার্শা

0
0

দিনমজুর বাবার একমাত্র ক্যান্সার আক্রান্ত মেয়ে বাঁচতে চাই : শার্শা

মা মাগো আমাদের টাকা থাকলে আমি বেঁচে থাকতাম। আর আমাদের টাকা নেই তাই আমি মরে যাবো। তাই না মা? এ প্রশ্ন একজন মাকে করছেন ক্যান্সার আক্রান্ত তার একমাত্র মেয়ে মোসাম্মাৎ তন্বী পারভিন (১২)। মা তার সন্তানের প্রশ্নের কোন উত্তর না দিলেও মায়ের বুকের ভেতরটা বারবার কেঁদে উঠছে।মা তার একমাত্র মেয়ের অগোচরে গোপনে চোখের পানি ফেলছেন প্রতিনিয়ত। দিনেরাতে সর্বদা মায়ের মনে বাজছে ক্যান্সার আক্রান্ত মেয়ে সেই কথা মা মাগো আমাদের টাকা থাকলে আমি বেঁচে থাকতাম আর আমাদের টাকা নেই বলে আমি মরে যাবো তাই না মা?বোবা কান্নায় বারবার বুকের স্তব্দ হয়ে যাচ্ছে একজন মায়ের। বলছিলাম যশোর জেলার শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া ঘোষপাড়া হৃতদরিদ্র দিনমজুর সাইদুল ইসলাম ও রেহানা পারভীন একমাত্র মেয়ে বাগআঁচড়া গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী বাম পায়ের উরুতে ক্যান্সারে আক্রান্ত তন্বী পারভীন (১২) এর কথা। গত ৪ মাস আগে স্কুলের বেঞ্চেরর কনাই আঘাতে ব্যাথা হলেও বাড়ীতে কাউকে কিছু বলেনি সে। কিন্তু কিছুদিন পর বাম পায়ের হাটু সহ তার উপরের অংশে প্রচন্ড ব্যাথা বেদনা শুরু হলে সে তার মা বাবাকে বিষয়টি জানায়।তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় কিন্তু কোন ঔষধে তেমন কোন ফলাফল ভালো না হওয়ায় যশোর কুইন্স হসপিটাল চিকিৎসা করানো হলে পরিক্ষা-নীরিক্ষার একপর্যায়ে ক্যান্সার ধরা পড়ে। তন্নীর হৃতদরিদ্র মা বাবা। এনজিও থেকে ঋন নিয়ে ধারদেনা করে ডাক্তারের পরামর্শে তন্নীকে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ঢাকা ক্যান্সার হসপিটাল চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে এবং ডাক্তারের পরামর্শ ঠাকুরপুকুর ক্যান্সার হাসপাতালে। ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেখানোর কথা বলেছেন অধ্যাপক এম এ ডক্টর, শামসুল আরিফিন এর তত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছিলো। মানুষের সাহায্যে, ধারদেনা করে এতদিন চিকিৎসা চললেও হৃতদরিদ্র দিনমজুর পিতামাতার পক্ষে চিকিৎসার টাকা যোগাড় করা আর সম্ভব হচ্ছেনা। দুনিয়ার ভালমন্দ বুঝবার আগেই তাদের প্রিয় সন্তানকে চোখের সামনে তিলেতিলে মারা যেতে দেখছেন গরীব ভিটেমাটি হীন অন্যের বাড়িতে ভাড়ায় থাকা অসহায় পিতামাতা অথচ ডাক্তাররা বলেছেন তার ভালো চিকিৎসা দিতে পারলে সে পরিপূর্ণ সুস্থ্য হয়ে উঠবে। তন্বীর মায়াভরা মুখটা দেখলে বড় মায়া লাগে। প্রতিবেশীসহ সকলের কাছে তন্বী একজন শান্তশিষ্ট,নম্রভদ্র মেয়ে হিসাবে পরিচিত। কিশোরী তন্বী বাঁচতে চাই। সে আবারো আর ১০ জনের মত স্কুলে যেতে চাই। সন্তানের জীবন বাঁচাতে অসহায়, হৃতদরিদ্র পিতামাতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সমাজের দানশীল ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছেন। যাতে তাদের একমাত্র মেয়ে আবারও সুস্থ্য হয়ে ফিরতে পারে স্বাভাবিক জীবনে। সাহায্যে পাঠানোর ঠিকানাঃ ইসলামী ব্যাংক কলারোয়া শাখা সঞ্চয় নং-৪১২৩৬। তন্বীর পিতার বিকাশ নাম্বার ০১৭৩৫-০২০৮১৯। মোবাইল ০১৯৪৭-৮৩০৭৬০।

সূত্রঃ bartajogbd.com

Please follow and like us:
0
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

call now
Poor News
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial