ময়মনসিংহ  চর ভবানীপুর গ্রামে খুঁটিতে বেঁধে দুই শিশুকে মারধর, গ্রেপ্তার-২

আশেপাশে
0
0

ময়মনসিংহ  চর ভবানীপুর গ্রামে খুঁটিতে বেঁধে দুই শিশুকে মারধর, গ্রেপ্তার-২

দুই শিশুকে রশি দিয়ে বাঁধা হয়েছে খুঁটিতে। এরপর বাঁশের লাঠি দিয়ে তাদের বেদম মারধর করা হচ্ছে। এমন একটি ভিডিও গতকাল শনিবার ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আজ রোববার দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মারধরের ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চর ভবানীপুর গ্রামে। গত বৃহস্পতিবার। মারধরের শিকার দুই শিশু হলো চর গোবিন্দপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মোঃ রাকিব (১২) ও জাহির মিয়ার ছেলে মোঃ ফয়সাল (১৭)। মুঠোফোন চুরির অভিযোগে তাদের ওপর ঐ নির্যাতন চালানো হয়। গ্রেপ্তার হওয়া দুজন হলেন চর ভবানীপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফা ও সফর আলী। জানতে চাইলে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া দুজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তাঁর ছেলে চুরি করেনি। মিথ্যা অভিযোগে তাকে মারা হয়েছে। তিনি এ নির্যাতনের বিচার চান। ফাতেমা বেগম, নির্যাতনের শিকার ফয়সালের মা থানা-পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, বুধবার গোলাম মোস্তফার মেয়ের মুঠোফোন চুরি হয়। এ অভিযোগে বৃহস্পতিবার রাকিব ও ফয়সালকে আটক করে মোস্তফার নেতৃত্বে নির্যাতন চালানো হয়। সে সময় অনেকে এ ঘটনার ভিডিও মুঠোফোনে ধারণ করেন। তবে মোস্তফা প্রভাবশালী হওয়ায় প্রথমে বিষয়টি কেউ প্রকাশ করেননি। মারধরের পর ফয়সালকে পুলিশে দেওয়া হয়। রাকিবকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে পুলিশ বাবা জাহিরের মুচলেকা নিয়ে ফয়সালকেও ছেড়ে দেয়। শনিবার রাতে স্থানীয় বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে ৯৯৯-এ কল করে মারধরের বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়। পরে মুঠোফোনে ধারণ করা ভিডিওটি ফেসবুকে প্রকাশ করা হয়। পুলিশ আজ ভোর পাঁচটার দিকে অভিযান চালিয়ে মোস্তফা ও সফরকে আটক করে। দুপুরে জাহির তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ফয়সালের মা ফাতেমা বেগম বলেন, তাঁর ছেলে চুরি করেনি। মিথ্যা অভিযোগে তাকে মারা হয়েছে। তিনি এ নির্যাতনের বিচার চান।

Please follow and like us:
0
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *