পাথরঘাটার পৌরসভার সম্ভাব্য প্রার্থীরা সরব ভোটাররা নীরব

Uncategorized
0
0

পাথরঘাটার পৌরসভার সম্ভাব্য প্রার্থীরা সরব ভোটাররা নীরব

 পাথরঘাটার পৌরসভাটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ১৯৯০ সালেপ্রতিষ্ঠার ৩০ বছরে কয়েক দফা নগরপিতার পরিবর্তন হলেও পৌরবাসীর ভাগ্যের তেমন পরিবর্তন আশানুরূপ উন্নয়ন হয়নি এই শহরেরদ্বিতীয় শ্রেণির এই পৌরসভা সাগর তীরবর্তী হওয়ায় প্রতিটা প্রাকৃতিক দুর্যোগেই আঘাতপ্রাপ্ত হয়পৌর এলাকার কয়েক কিলোমিটার রয়েছে বিষখালী নদীর তীরে, যা প্রতিদিন ভাঙছে আর পৌরবাসীকে আতঙ্কে রাখছেএকইসঙ্গে বেড়িবাঁধের বাইরে থাকা লোকজন বর্ষা মৌসুমে স্বাভাবিক জোয়ারে তলিয়ে যায়ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় তলিয়ে যায় পৌরসভার বেশ কিছু এলাকাপৌরসভার ৪০ ভাগ রাস্তা এখনো কাঁচা রয়েছেসাগরের কাছে হওয়ায় নেই সুপেয় পানির ব্যবস্থাতাই ১৭ কিলোমিটার দূর থেকে খাবার পানি সরবরাহ করা হয়, যা চাহিদার তুলনায় অনেক কমএমনকি পৌরসভার নিজস্ব ভবন না থাকায় পাবলিক লাইব্রেরিকে পৌরভবন হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছেপৌরবাসী এখানে এসে বসতেও পারে না স্থান সংকুলানের অভাবেনেই ২৫ হাজার নাগরিকের শহরে গাড়ি রাখার মতো নিজস্ব কোনো স্ট্যান্ড। প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে মল্লিক মোহাম্মদ আইউব আনোয়ার হোসেন আকনই রাজত্ব করেছেন এই পৌরশহরেতবে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে এই প্রবীণ দুই মেয়রের স্থান দখল করতে নতুনরা অগোছালো শহরকে পরিচ্ছন্ন শহরে রূপ দেওয়ার স্বপ্ন দেখাচ্ছেন পৌরসভাবাসীকে।  গত মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচন কমিশনের এক সভায় নভেম্বর ডিসেম্বরের মধ্যে ২৩৪ পৌরসভায় নির্বাচন আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়এরই অংশ হিসেবে ইসি সচিবালয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে থাকেইসির পক্ষ থেকে সারাদেশের নির্বাচন উপযোগী পৌরসভার তথ্য চেয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে চিঠিও দেওয়া হয়েছেবিদ্যমান আইনানুযায়ী মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে এবং কাউন্সিলর সংরক্ষিত (নারী) কাউন্সিলর পদে স্বতন্ত্র প্রতীকে ভোট হবে। নির্বাচন ঘিরে মাঠে চোখে পড়ার মতো তৎপরতা শুরু করেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরাকারণ ২০১৫ সালের ৩০শে ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে ভোট হয়েছিলএবারও সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের ভোটযুদ্ধে নামার আগে দলীয় মনোনয়ন লাভের লড়াইয়ে নামতে হবে, যার জন্য লবিং শুরু হয়ে গেছেক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বিএনপির একাধিক নেতা দলীয় মনোনয়ন পেতে মাঠে আছেনতাদের অনেকেই দলীয় মনোনয়ন না পেলে স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনের মাঠে থেকে ভোটযুদ্ধে অংশগ্রহণ করবেন বলে জানা গেছে। আওয়ামী লীগ বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেনছাড়া কারোনাকালে স্থানীয় লোকজনকে সহযোগিতা করছেন বিভিন্নভাবেঅনেকে নির্বাচন সামনে রেখে একান্ত বৈঠক করেছেন পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডেবসে নেই সম্ভাব্য ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীরাওতারা সরবে মাঠে কাজ করছেনসবার লক্ষ্য একটা-আসন্ন নির্বাচনে অংশ নেওয়াতবে নিয়ে ভোটারদের মাঝে তেমন উৎসাহ নেইসুষ্ঠু নির্বাচন হলে যোগ্য প্রার্থী দেখেই তারা ভোট দিতে চান বলে জানা গেছেউপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ আইউব আলী হাওলাদার জানান, আগামী নভেম্বর-ডিসেম্বরে পাথরঘাটা পৌরসভার নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছেনির্বাচনসংক্রান্ত তথ্য নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবেতবে তারা ইতোমধ্যে মাঠপর্যায়ে এই নির্বাচন প্রস্তুতির কাজ শুরু করেছেন। পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বর্তমান মেয়র, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন আকন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাবির হোসেন, যুবলীগ সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মুরাদ, শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক কাউন্সিলর মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলের নাম আছে আলোচনায়বিএনপি থেকে মেয়র পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী সাবেক মেয়র মল্লিক মোহাম্মদ আইউব, কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাকু, অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান

 

Please follow and like us:
0
0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *